Breaking News
* ফের ভার্চুয়াল মন্ত্রিসভা বৈঠকের সিদ্ধান্ত * পদ্মা সেতুতে গত ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড টোল আদায় * ’দেশে করোনায় আরো ৬ জনের মৃত্যু ও শনাক্ত হয়েছে ১,১০৫ জন’ * গুলশানের আকাশে উড়ছে ড্রোন, খোঁজা হচ্ছে মশার উৎপত্তিস্থল * মণিপুরে ভূমিধসে মৃত্যু বেড়ে ৮১, ধ্বংসস্তূপে আরও ৫৫ জন * ন্যাটোর দাবি হাস্যকর ও মর্যাদাহানিকর: ল্যাভরভ * ‘আমার মেয়ে আত্মহত্যা করেনি, হত্যা করা হয়েছে’ * কুষ্টিয়ার বিলপাড়ায় ভাগ্নের হাতুড়ির আঘাতে মামা মৃত্যু * গুলিস্তান ট্রাকের ধাক্কায় অজ্ঞাত পরিচয় এক পথচারী নিহত * মাত্র এক সপ্তাহে যুক্তরাজ্যে করোনা সংক্রমণ বেড়েছে ৩২ শতাংশ
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বাধিক আলোচিত

POOL

দেশের অভ্যন্তরে এবং আন্তর্জাতিক অঙ্গনে দেশবিরোধী ও জনগণের স্বার্থ পরিপন্থী নানামুখী ষড়যন্ত্রে লিপ্ত বিএনপি বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। আপনি কি তাঁর সাথে একমত?

Note : জরিপের ফলাফল দেখতে ভোট দিন

চট্টগ্রামের মিরসরাই স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ মামলায় কবিরাজের যাবজ্জীবন

09-06-2022 | 06:13 pm
আইন ও আদালত

ঝাড়ফুঁক দেওয়ার কথা বলে চট্টগ্রামের মিরসরাই স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে এক কবিরাজকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত।

ঢাকা : ঝাড়ফুঁক দেওয়ার কথা বলে চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলার জোরারগঞ্জ থানা এলাকায় এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে মো. হারুন নামে এক কবিরাজকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন চট্টগ্রামের একটি আদালত। একই সঙ্গে তাকে ৩ লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও তিন বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

বুধবার (৮ জুন) দুপুরে চট্টগ্রাম নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৭ এর বিচারক ফেরদৌস আরা এ রায় দেন। দণ্ডিত আসামি হারুন জোরারগঞ্জ থানার মধ্যম আজমনগর ছুনিমিঝির বাড়ির মৃত মাওলানা আবদুল কুদ্দুসের ছেলে।

রায়ে জরিমানার টাকা ভিকটিমের পরিবারকে দিতে বলা হয়েছে বলে জানান নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৭ এর রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী পিপি খন্দকার আরিফুল আলম।

তিনি বলেন, আটজনের সাক্ষ্যের ভিত্তিতে আদালত এ রায় দিয়েছেন। রায়ের সময় আসামী পলাতক ছিলেন বলেও জানান তিনি।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০১৬ সালের ২১ জানুয়ারি কবিরাজ নামধারী মো. হারুনের কাছে পানির মোটরচুরির বিষয়ে আয়না পড়ার জন্য যান এক ব্যক্তি। তখন কবিরাজ ঝাড়ফুঁকের জন্য একজন কুমারী লাগবে বলেন জানান। পরদিন ভিকটিম ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ুয়া এক শিশুকে নিয়ে যায়। প্রথমে কিছুক্ষণ ঝাড়ফুঁক ও তাবিজ লিখে দেন। পরে মো. হারুন কবিরাজ ওই শিশুকে নিজের ঘরে নিয়ে তেল মালিশের নাম করে ধর্ষণ করেন। এসময় চিৎকার শুনে লোকজন গিয়ে শিশুকে উদ্ধার করে। পরে তাকে ফেনী জেলা ছাগলনাইয়া পরে ফেনী জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় ভিকটিমের মা বাদী হয়ে ওই বছরের ২৪ জানুয়ারি কবিরাজের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

কমেন্ট

<<1>>

নাম *

কমেন্ট *

সম্পর্কিত সংবাদ

© ২০১৬ | এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি | dainikprithibi.com
ডিজাইন এবং ডেভেলপমেন্ট - মোঃ রেজাউল ইসলাম রিমন