Breaking News
* 'রোহিঙ্গা শিবিরে অভিযানে সন্ত্রাসী গ্রুপের তোহা বাহিনীর প্রধানসহ দুজন আটক' * 'নাইজেরিয়ায় আগুনে পুড়ে মারা গেছেন বাসের ৩০ যাত্রী' * 'বিশ্বজুড়ে করোনায় মৃতের সংখ্যা পৌঁছেছে ৫২ লাখ ৮৬ হাজার' * 'অপরাধ করে কেউ ছাড় পাবে না': কাদের * 'সরকারই পারে চিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠাতে, আইন কোনো বাধা না' * 'পদ্মা’ ও ‘মেঘনা’ নামেই হচ্ছে দেশে নতুন দুটি বিভাগ * মুরাদ হাসানকে আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদকের পদ থেকে অব্যাহতি * 'উপসাগরীয় অঞ্চলের সব দেশের সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়নে কাজ করছে তুরস্ক' * 'ভারতকে মহাশক্তি হিসাবে দেখে রাশিয়া' * 'ওমিক্রনের সংক্রমণ ক্ষমতা বেশি হলেও মারণ ক্ষমতা নেই'
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বাধিক আলোচিত

POOL

বিচার ব্যবস্থার যত উন্নয়ন সব আওয়ামী লীগের সময়েই হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আপনি কি তাঁর সাথে একমত?

Note : জরিপের ফলাফল দেখতে ভোট দিন

'গণপরিবহন ধর্মঘটে কক্সবাজারে এসে বিপাকে হাজার হাজার পর্যটক'

05-11-2021 | 08:46 pm
পর্যটন

ডিজেল ও কেরোসিনের দাম বাড়ানোর প্রতিবাদে ডাকা গণপরিবহন ধর্মঘটের কারণে কক্সবাজারে এসে বিপাকে পড়েছেন হাজার হাজার পর্যটক।

কক্সবাজার: ডিজেল ও কেরোসিনের দাম বাড়ানোর প্রতিবাদে ডাকা গণপরিবহন ধর্মঘটের কারণে কক্সবাজারে এসে বিপাকে পড়েছেন হাজার হাজার পর্যটক। আগাম ঘোষণা ছাড়া হঠাৎ বাস চলাচল বন্ধ হয়ে যাওয়ায় আটকা পড়েছেন তারা। কেউ কেউ তড়িঘরি করে কক্সবাজার ছাড়লেও বেশির ভাগ পর্যটক আটকে আছেন।

কক্সবাজারের বাস পরিবহনসেবার সঙ্গে জড়িতরা বলছেন, শুক্রবার থেকে বাস ধর্মঘট হবে এমন খবর গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় তারা জানতে পারেন। এতে অনেক পর্যটক রাতেই ফিরে যান। বৃহস্পতিবার হওয়া সত্ত্বেও রাতের বাসগুলোতে অনেক ভিড় ছিল। তবে শুক্রবার থেকে বাস পুরোপুরি বন্ধ রয়েছে। মালিকপক্ষের নির্দেশনার কারণ একটি বাসও ছেড়ে যায়নি। যারা টিকেট কেটেছিলেন তাদের ফোনে বিষয়টি জানিয়ে দেওয়া হচ্ছে। কেউ কেউ টাকা ফেরতও নিয়েছেন। আবার কেউ রাত পর্যন্ত অপেক্ষা করছেন।

ঢাকা থেকে আসা পর্যটক নাজমুল হাসান বলেন, ‘গত দুই দিন আগে কক্সবাজারে বেড়াতে এসেছি। ধর্মঘটের কারণে ঢাকায় যেতে পারছি না। গতকাল ঝাউতলা গ্রিন লাইন কাউন্টার থেকে অগ্রিম টিকেট বুকিং করেছিলাম। এখন কাউন্টার থেকে বলছে, রাতে গাড়ি না ছাড়লে টাকা ফেরত দেবে। কিন্তু থাকবো কোথায়, রুমও ছেড়ে দিয়েছি।’

আরেক পর্যটক জামাল হোসেন বলেন, ‘শুক্রবার বিকাল ৫টায় আমার টিকেট ছিল। কিন্তু এখন বাস যাচ্ছে না। আসলে খুব দুর্ভোগে পড়লাম।’

ইউনিক পরিবহনের কক্সবাজারের ইনচার্জ আবদুর রহিম জানান, দিনের বেলা তাদের কোনো বাস নাই। রাতেই সব বাস চলাচল করে। অনেকের টিকেট বুকিং ছিল, যারা যেতে পারছে না তাদের ফেরত দেওয়া হচ্ছে। আর যারা টিকেট ফেরত নেবেন না তারা গাড়ি চলাচল স্বাভাবিক হলে যেতে পারবেন।

গ্রিন লাইন পরিবহন কক্সবাজারের ইনচার্জ সোলতান আহমদ বলেন, আমাদের যাদের টিকেট বুকিং আছে, শুক্রবার রাতে গাড়ি ছেড়ে না গেলে টাকা ফেরত দেব। ধর্মঘট চলমান থাকলে রাতে বাস না চলার সম্ভাবনার কথা যাত্রীদের বলে দিচ্ছি ফোনে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক পরিবহন নেতা বলেন, ‘জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধি করলে আমরা কীভাবে পরিবহন মাঠে নামাবো। কেন্দ্রের নির্দেশে সমস্ত গাড়ি কক্সবাজারে আমরা বন্ধ রেখেছি। যখন পরিস্থিতি স্বাভাবিক বা উপরের নির্দেশনা আসবে তখন বাসচলাচল আবার শুরু হবে।’

কক্সবাজার হোটেল-মোটেল অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক কলিম উল্লাহ কলিম বলেন, বাস বন্ধের অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনায় পর্যটকেরা আটকে পড়েছেন। আবার অনেকই বুকিং দিয়ে আসতেও পারছেন না। এতে আমাদের ব্যবসার ক্ষতি হবে আবারো। এটা সারাদেশে সমস্যা। দ্রুত বসে সমাধান করা উচিত।

কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট (পর্যটন সেল) সৈয়দ মুরাদ ইসলাম জানান, পরিবহন ধর্মঘটের পর পর্যটকরা যাতে হয়রানির শিকার না হয় খবরাখবর রাখা হচ্ছে। বাস কাউন্টার থেকে যাতে টিকেটের টাকা ফেরত দেওয়া হয় এবং হোটেলে যেন সমস্যা না হয় সে ব্যাপারে তারা তদারকি করছেন।

গত বুধবার রাতে জ্বালানি তেলের দাম ৬৫ থেকে ১৫ টাকা বাড়িয়ে ৮০ টাকা নির্ধারণ করে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে সরকার। এর প্রতিবাদে এবং ভাড়া বাড়ানোর দাবিতে শুক্রবার থেকে যাত্রী ও পণ্যবাহী যান চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে মালিকপক্ষ। এতে সারাদেশে চরম ভোগান্তিতে পড়েছে যাত্রী সাধারণ।

কমেন্ট

<<1>>

নাম *

কমেন্ট *

সম্পর্কিত সংবাদ

© ২০১৬ | এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি | dainikprithibi.com
ডিজাইন এবং ডেভেলপমেন্ট - মোঃ রেজাউল ইসলাম রিমন